বাংলাদেশে আবার আক্রান্ত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উপাসনাস্থল, দোলের পূর্বরাতে ঢাকায় রাধাগোবিন্দ মন্দিরে হামলা - nagariknewz.com

বাংলাদেশে আবার আক্রান্ত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উপাসনাস্থল, দোলের পূর্বরাতে ঢাকায় রাধাগোবিন্দ মন্দিরে হামলা


দুশো বছরের প্রাচীন মন্দিরটি বর্তমানে ইসকনের পরিচালনাধীন। বাংলাদেশে ইসকনের বিরুদ্ধে পরিকল্পিতভাবে ঘৃণা ছড়ানো হচ্ছে বলে অভিযোগ। এই হামলার পেছনে ইসকন বিদ্বেষের পাশাপাশি জমি দখলের ষড়যন্ত্র‌ও থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

দক্ষিণ এশিয়া ডেস্ক :বাংলাদেশে আবার আক্রান্ত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উপাসনাস্থল। বৃহস্পতিবার গৌর পূর্ণিমার রাতে রাজধানী ঢাকার ওয়াড়ির ২২২ লালমোহন স্ট্রিটের রাধাকান্ত মন্দিরে যখন নাম সংকীর্তন চলছিল তখন প্রায় শ’দুয়েক জনতা সেখানে হামলা চালায় বলে অভিযোগ। দুশো বছরের ‌পুরোনো মন্দিরটি বর্তমানে ইসকন দ্বারা পরিচালিত। হাজি শফিউল্লাহ নামে এক ব্যক্তি হামলার নেতৃত্ব দেয়। লাঠিসোঁটা নিয়ে মন্দিরে ঢুকে ভক্তদের মারধর শুরু করে হামলাকারীরা। মন্দির চত্বরে যথেচ্ছ ভাঙচুর এবং লুটপাট চালিয়ে এমনকি বিগ্রহ অপবিত্র করে ফিরে যায় জনতা। ঘটনার সময় পুলিশের দেখা পাওয়া যায় নি বলে মন্দির কর্তৃপক্ষের অভিযোগ। হামলায় পুরোহিত ও ভক্ত সহ আহত পঞ্চাশের বেশি।

একুশের শারদীয়া দুর্গোৎসবের সময় বাংলাদেশ জুড়ে সংখ্যালঘু নির্যাতনের ক্ষত এখনও শুকোয় নি। মহাষ্টমীতে কুমিল্লার পুজো মন্ডপে কোরান শরীফ রেখে দিয়ে দাঙ্গার সূত্রপাত। পরদিন নোয়াখালীর ইসকন মন্দিরে তান্ডব। ঢাকা সহ বাংলাদেশের ষোলোটি জেলায় সংখ্যালঘুদের উপর একযোগে আক্রমণ নেমে আসে। নোয়াখালীতে ইসকনের সেবক সহ পাঁচজন নিহত হয়। পাঁচমাস পর রাজধানী ঢাকায় ফের ইসলামিক মৌলবাদীদের নিশানায় ইসকন।

দুশো বছরের প্রাচীন মন্দিরটির জমি দখলই হামলার উদ্দেশ্য বলে মনে করা হচ্ছে।

ঢাকা সহ বাংলাদেশের অসংখ্য সংখ্যালঘু সম্পত্তি ইতিমধ্যেই জবরদখল। জবরদখল হ‌ওয়া জমি ও পরিকাঠামোর মধ্যে অনেক দেবোত্তর সম্পত্তিও আছে। ওয়াড়ি থানার ২২২ লালমোহন স্ট্রিটের দুশো বছরের পুরোনো রাধাকান্ত মন্দিরের উপরেও এলাকার সংখ্যাগুরু জনগোষ্ঠীর প্রভাবশালীদের নজর পড়েছে বলে জানা যাচ্ছে। হাজি শফিউল্লাহ হিন্দু মন্দিরটি দখল করতে চায়। তার পেছনে আর‌ও অনেকের মদত থাকতে পারে বলে মন্দির কর্তৃপক্ষের অনুমান। পুলিশ নিয়মমাফিক ঘটনার তদন্তে নামলেও তাতে ভরসা করতে পারছেন না আক্রান্তরা।

ঢাকার ওয়াড়িতে রাধাগোবিন্দ মন্দিরে ভাঙচুর চালাচ্ছে ধর্মান্ধ জনতা।

বিশ্বজুড়ে ভক্তিবেদান্ত শ্রীল প্রভুপাদ প্রতিষ্ঠিত ইসকন গৌড়ীয় বৈষ্ণব ধর্মের প্রচার চালায়। একমাত্র বাংলাদেশেই ইসকনের উপর লাগাতার ঘৃণা ও বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে একটি গোষ্ঠী। এর ফলে সেখানে ইসকনের উপর হামলার ঘটনা‌ দিন দিন বাড়ছে বলে মনে করা হচ্ছে। বাংলাদেশে ইসকনের বিরুদ্ধে যারা সুপরিকল্পিতভাবে সামাজিক মাধ্যমে বিদ্বেষ ছাড়াচ্ছে তাদের মধ্যে অন্যতম আবার ‌পিনাকী ভট্টাচার্য। জন্মসূত্রে হিন্দু এই সাবেক বাম ছাত্র নেতা এখন বাংলাদেশের ইসলামিক মৌলবাদীদের স্বঘোষিত মুখপাত্রের দায়িত্ব পালন করছেন। শেখ হাসিনার সরকারের কট্টর সমালোচক পিনাকী বর্তমানে ফ্রান্সে স্বেচ্ছা নির্বাসিত।

Photo Sources- Facebook.


Leave a Reply

Your email address will not be published.