করোনায় গ্যাং স্টার ছোটা রাজনের মৃত্যু ? মিডিয়ার জল্পনা ওড়াল এইমস ও পুলিশ


৭ মে , ২০২১ : করোনা আক্রান্ত মাফিয়া ডন ছোটা রাজনের মৃত্যুর খবর সঠিক ‌নয় বলে জানিয়ে দিল দিল্লি পুলিশ । এক‌ই খবর এসেছে দিল্লির এইমস ( AIIMS ) কর্তৃপক্ষের কাছ থেকেও । করোনা সংক্রমিত হ‌ওয়ার পর  কারারুদ্ধ ছোটা রাজনকে গত ২৬ এপ্রিল এইমস’এ ভর্তি করে তিহাড় জেল কর্তৃপক্ষ । শুক্রবার বিকেল থেকে বিভিন্ন চ্যানেল ও সংবাদ মাধ্যমে ছোটা রাজনের মৃত্যুর খবর প্রচারিত হতে থাকে । তবে সন্ধ্যা নাগাদ এইমস কে উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা এএনআই ( ANI ) জানায় আন্ডার ওয়ার্ল্ড ডন ছোটা রাজন জীবিত‌ই আছে । ছোটা রাজনের মৃত্যুর খবর অস্বীকার করে দিল্লি পুলিশ ও তিহাড় জেল কর্তৃপক্ষ‌ও ।

 

এএনআই’এর ট্যুইট ।

মুম্বাইয়ের অপরাধ জগতের অন্যতম এই চাঁইকে ২০১৫ সালে ইন্দোনেশিয়া থেকে গ্রেফতার করে এনে তিহাড় জেলে ভরে দেয় পুলিশ । তাঁর বিরুদ্ধে হত্যা , হত্যার চেষ্টা , মাদক  পাচার  এবং তোলাবাজি সহ ৭০টির বেশি মামলা ঝুলছে মুম্বাইয়ের আদালতে । তবে ছোটা রাজনের বিরুদ্ধে চলা যাবতীয় মামলার তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে এবং একটি বিশেষ আদালতে সমস্ত মামলার শুনানি চলছে । ২০১১ সালে মুম্বাইয়ে সাংবাদিক জ্যোতির্ময় দে হত্যার ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত হ‌ওয়ায় ছোটা রাজনকে ২০১৮ সালে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত । 

ছোটা রাজন আগে যেমন দেখতে ছিল ।

৬২ বছরের এই আন্ডার ওয়ার্ল্ড ডন ডায়াবেটিস ও হৃদযন্ত্রের সমস্যায় ভুগছেন বলে জানা গেছে । কারাবন্দী অবস্থাতেই করোনায় আক্রান্ত হয় ছোটা রাজন ।‌ যার পুরো নাম রাজেন্দ্র সদাশিব নিকালজে । ১৯৮৯ সালে দুবাই পালিয়ে যাওয়ার পর থেকে দাউদ ইব্রাহিমের ডানহাত হয়ে ওঠে ছোটা রাজন । যদিও এই দোস্তি বেশি দিন টিকে নি । ১৯৯৩ সালে দাউদের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগ করে পৃথক গ্যাং তৈরি করে ছোটা রাজন । এর পর থেকে দাউদের দলবলের সঙ্গে ছোটা রাজনের লোকজনের সংঘর্ষে উত্তপ্ত হতে থাকে মুম্বাইয়ের অপরাধ জগত । ২০১৫ র ২৫ অক্টোবর ইন্দোনেশিয়ার বালি থেকে তাকে গ্রেফতার করে সে দেশের পুলিশ । ৬ নভেম্বর ছোটা রাজনকে ভারত সরকারের হাতে প্রত্যর্পণ  করে ইন্দোনেশিয়া প্রশাসন ।  

Picture Credits – ANI 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *