করোনা মোকাবিলায় ভ্যাকসিনেশন শুরুর পথে দেশ , রাজ্যের প্রতিটি জেলায় টিকার মহড়া || জলপাইগুড়ি জেলার তিন কেন্দ্রে ৭৫ জন স্বাস্থ্যকর্মীর ওপর ভ্যাকসিনের ড্রাইরান


প্রদ্যুৎ দাস,জলপাইগুড়ি,৮ জানুয়ারি : করোনা প্রতিরোধে আসল ভ্যাকসিনেশন পর্ব শুরুর আগে এখন চলছে ভ্যাকসিনেশনের মহড়া বা মক ড্রিল ‌। এই নকল টিকাদানকে ডাক্তারির ভাষায় বলা হচ্ছে ড্রাই রান ফর দ্য কোভিড নাইন্টিন ভ্যাকসিনেশন । শুক্রবার রাজ্য জুড়ে প্রতিটি জেলার তিনটি করে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ড্রাই রান বা টিকার মহড়া শুরু হয়েছে । প্রতিটি কেন্দ্রে ২৫ জন করে স্বাস্থ্যকর্মীর ওপর এই মহড়া চলবে । ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গ সহ গোটা দেশেই কোভিড ভ্যাকসিনের প্রথম মহড়া হয়ে গেছে । শুক্রবার থেকে দেশব্যাপী শুরু হল সেকেন্ড ড্রাই রান বা দ্বিতীয় মহড়া । 

জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে টিকাকরণের মহড়া চলছে ।
এদিন জলপাইগুড়ি জেলার সদর হাসপাতালের পাশাপাশি ধুপগুড়ি ও সুল্কাপাড়া স্বাস্থ্যকেন্দ্রে করোনা ভ্যাকসিনের মহড়া শুরু হয়েছে । প্রতিটি কেন্দ্রে‌ই ২৫জন করে মোট ৭৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী ড্রাইরানে অংশ নিয়েছেন বলে করোনা প্রতিরোধে বিশেষ দায়িত্ব প্রাপ্ত বিশেষ স্বাস্থ্য আধিকারিক ডঃ সুশান্ত রায় জানিয়েছেন । ওএসডি বলেন, ‘ যখন ভ্যাকসিনেশন শুরু হবে তখন অনেক গুলো প্রোটোকল মানতে হবে । প্রোটোকল গুলো যথাযথ ভাবে মানা যাচ্ছে কিনা এটা পরীক্ষা করে দেখতেই ড্রাই রান করা হচ্ছে । ‘ যারা ভ্যাকসিন নেবেন , আগেই তাদের প্রত্যেকের নাম এবং তথ্য রেজিস্ট্রেশন বাধ্যতামূলক । টিকা গ্রহণের পর আধাঘন্টা বিশ্রামে থাকতে হবে ।
প্রথম পর্যায়ে ভ্যাকসিন পাবেন দেশের সকল স্বাস্থ্যকর্মী

 সরকার পর্যায়ক্রমে দেশের একশ শতাংশ নাগরিককেই ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে বলে ডঃ সুশান্ত রায় জানিয়েছেন । তবে প্রথম পর্যায়ে করোনার টিকা পাবেন স্বাস্থ্য কর্মীরা । দ্বিতীয় পর্যায়ে পুলিশ , নিরাপত্তা এজেন্সির কর্মী এবং সাংবাদিক সহ বিভিন্ন জরুরী পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত মানুষেরা । তৃতীয় পর্যায়ে ঘরে থাকা প্রবীণ নাগরিকেরা । আশা কর্মী সহ জলপাইগুড়ি জেলায় প্রায় এগার হাজার স্বাস্থ্যকর্মী আছেন।রাজ্যে কোভিড নাইন্টিন ভ্যাকসিনের প্রথম লট শুক্রবারের মধ্যেই চলে আসতে পারে বলে সূত্র মারফত জানা গেছে । সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ার কোভিশিল্ড এবং ভারত বায়োটেকের কোভ্যাকসিন – দুটোই দেশের নাগরিকদের ওপর প্রয়োগের ছাড়পত্র দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। 

ভিডিওতে দেখুন –


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *