বিসর্জন চলা কালে মাল নদীতে হড়পা বান! সাতজনের মৃত্যু, নিখোঁজ বহু - nagariknewz.com

বিসর্জন চলা কালে মাল নদীতে হড়পা বান! সাতজনের মৃত্যু, নিখোঁজ বহু


মালবাজার : বিজয়া দশমীর আনন্দ পরিণত হল বিষাদে। প্রতিমা বিসর্জন দিতে এসে হড়পা বানের মুখে নদীতে ডুবে মৃত্যু সাতজনের। নিখোঁজ ২৫-৩০ জন বলে প্রশাসনের অনুমান। বুধবার রাতে ভরা উৎসবের মাঝেই এমন মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটল জলপাইগুড়ি জেলার মালবাজারে। বিসর্জন পর্ব চলা কালে রাত সাড়ে আটটা নাগাদ আচমকাই হরপা বান নামে মাল নদীতে। জলে যারা ছিলেন, তারা সরার অবকাশ‌ও পান নি। দুই পাড়ে উপস্থিত অসংখ্য দর্শনার্থীর চোখের সামনেই খড়কুটোর মতো ভেসে যেতে থাকে একের পর এক মানুষ। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। আর‌ও যারা ভেসে গেছেন, তাদের খোঁজে এনডিআর‌এফ নামানো‌ হয়েছে।

ভিডিও- প্রতিমা বিসর্জনের সময় মাল নদীতে হড়পা বানে মানুষ ভেসে যাওয়ার হাড় হিম করা দৃশ্য।

ডুয়ার্সের পাহাড়ি নদীতে এমনিতে হাঁটু জলের বেশি থাকে না। কিন্তু হড়পা বান নেমে এলে বিপজ্জনক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। বর্ষাকালে পাহাড়ে প্রবল বৃষ্টি হলে ডুয়ার্সের নদীগুলিতে হড়পা বান নামে। তবে এ’দিন মানুষ উৎসবের আমেজে মজে থাকায় বান আসার আশঙ্কা ছিল‌ না কারোর‌ই। সতর্ক করা হয় নি প্রশাসন থেকেও। প্রতিমা ভাসান দিতে দলে দলে আশেপাশের বাসিন্দারা মাল নদীর দুই পাড়ে জড়ো হয়েছিলেন। চারপাশে আনন্দের পরিবেশ। বহু মানুষ মোবাইলে ভাসানের দৃশ্য ভিডিও করে রাখছিলেন। হরপা বানে মানুষের ভেসে যাওয়ার হাড় হিম করা দৃশ্য‌ও তাদের মোবাইলে উঠে যায়। মুহূর্তের মধ্যে উৎসবের আনন্দ পরিণত হয় আতঙ্কে। চিৎকার, চেঁচামেচি, আর্তনাদে ঘটনাস্থলের পরিবেশ ভারী হয়ে ওঠে।

খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে ছুটে যান উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা।‌ দমকল, পুলিশ,‌ সিভিল ডিফেন্স এবং এনডিআর‌এফ কাজে নেমে পড়ে। অনেকে ভাসতে ভাসতে চড়ায় আটকা পড়েছেন। তাদের উদ্ধার করা হয়েছে। ১১ জনকে আহত অবস্থায় মাল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে যারা ভেসে গিয়েছে, তাদের নিয়ে চিন্তায় প্রশাসনের আধিকারিকেরা। ঠিক কতজন নিখোঁজ তা স্পষ্ট করে বলতে পারছে না জেলা প্রশাসন। সংখ্যাটা ২০-২৫ হতে পারে বলে আশঙ্কা।

Video and Photo- Reporter.


Leave a Reply

Your email address will not be published.