সিবিআইয়ের কাছে হাজিরা দেওয়ার শেষ সময়‌ও পেরিয়ে গেছে, পরেশ এখনও উধাও‌ই!


কলকাতা : আইনের যাঁতাকলে পড়ে তৃণমূল সরকারের হেভিওয়েট মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বুধবার সিবিআইকে দেখা দিয়ে এসেছেন। পার্থদাকে দেখে অনুপ্রাণিত হয়েই বোধহয় বুকে বল এসেছে অনুব্রতের‌ও। বৃহস্পতিবার ঘন্টা চারেক নিজাম প্যালেসে সিবিআই আধিকারিকদের সঙ্গে মধুরালাপ সেরে খানিক বিশ্রামের জন্য উডবার্নে উঠেছেন কেষ্ট। কিন্তু সিবিআইকে এখনও পরশ করার সুযোগ দেন নি পরেশ। রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশচন্দ্র অধিকারী কোথায়? এটাই এখন কোটি টাকার প্রশ্ন?

মঙ্গলবার রাত আটটার মধ্যে নিজাম প্যালেসে হাজির থাকার কথা ছিল তাঁর। সেদিন সন্ধ্যায় জলপাইগুড়ি রোড স্টেশনে সংবাদ মাধ্যমের ক্যামেরায় ধরাও দিলেন তিনি। কিন্তু তারপর থেকে শুধুই রহস্য। হেঁজিপেঁজি লোক নয়। মন্ত্রী বলে কথা। আর সেই মানুষটা কিনা কন্যা সহ আমাদের চোখের সামনে থেকে বেমালুম উধাও! এমনকি পুলিশের রাডারেও ধরা পড়ছে না মন্রীমশাইয়ের উপস্থিতি। বুধবার গোটা একটা ‌দিন গিয়েছে পরেশ অধিকারীর অফিসিয়াল কোনও খোঁজ খবর নেই। সংবাদ মাধ্যমে শুধু ধোঁয়া ধোঁয়া খবর। বর্ধমান রেল স্টেশনের সিসি টিভি ফুটেজে পরেশ ও তাঁর মেয়ের ছায়া ধরা পড়েছে বটে কিন্তু তারপর থেকে তাঁদের আর কোন‌ও সন্ধান পাওয়া যায় নি।

বিরোধীরা বুধবার রাত থেকেই শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর সন্ধান চাই বলে পথে নামলেও প্রশাসন একদম চুপচাপ। পরেশ অধিকারী বুধবার ভোর থেকে অদৃশ্য থাকলেও দুপুরে সিঙ্গেল বেঞ্চের নির্দেশের বিরুদ্ধে ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন জানিয়েছিলেন তাঁর আইনজীবীরা। সেই আবেদন ডিভিশন বেঞ্চ শুনতে পর্যন্ত রাজি হয় নি। পাবলিক ভেবেছিল, এবার বুঝি মন্ত্রীমশাই ভেসে উঠে নিজাম প্যালেসের দিকে র‌ওনা দেবেন। হেভিওয়েট পার্থ চট্টোপাধ্যায় পর্যন্ত নিজাম প্যালেসে ঢুকে সাড়ে তিনঘন্টার জেরাপর্ব পার করে তবে বাড়ি ফেরেন। কিন্তু বুধবার গোটা রাত পেরিয়ে বৃহস্পতিবার ভোরেও রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বেপাত্তা! পরেশ অধিকারীর রাজনৈতিক বিরোধী থেকে সাধারণ মানুষ- সবাই তাঁর চিন্তায় ব্যাকুল। অথচ সরকার নির্বিকার।

এই রঙ্গেভরা বঙ্গদেশে অনেক কিছুই ঘটেছে কিন্তু এমন পরিস্থিতি আমরা কেউ বাপের জন্মে দেখি নি। সিবিআইয়ের ভয়ে মন্ত্রী উধাও! মন্ত্রীর মোবাইল বন্ধ। তাঁর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশকর্মীরা পর্যন্ত জানে না স্যার কোথায়। এদিকে তিনি আদালত অবমাননার মামলায় ফাঁসতে চলেছেন।‌ বৃহস্পতিবার সকালে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের বেঞ্চে মামলা উঠতেই পরেশ অধিকারীকে সিবিআই দফতরে যাওয়ার জন্য বেলা তিনটা পর্যন্ত শেষ সুযোগ দেয় আদালত। বিকেল গড়িয়ে সন্ধে নামলেও পরেশ নিজাম প্যালেসে ঢোকেন নি। রাজ্যবাসী তাদের একজন মন্ত্রীকে খুঁজে পাচ্ছে না।

Feature image is representational.


Leave a Reply

Your email address will not be published.