মা বকতেই আত্মঘাতী মোবাইল গেমে আসক্ত বছর পনেরোর কিশোর!


জলপাইগুড়ি : মা শাসন করতেই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হল মোবাইল গেমে আসক্ত ছেলে। ছেলেটির বয়স মাত্র পনেরো। ক্লাসে টেনের পড়ুয়া। জলপাইগুড়ি জেলার ধূপগুড়ি ব্লকের বানারহাট থানার ফটকটারি গ্রামের‌ ঘটনা।

অমিত রায় নামের ওই কিশোর দিনরাত মোবাইলে বুঁদ হয়ে থাকত। ছিল গেমের নেশা। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মাঠ থেকে গরু নিয়ে বাড়ির গোয়ালে বেঁধেই মোবাইল নিয়ে বসে অমিত। ছেলের হাত থেকে মোবাইল কেড়ে নিয়ে মা একটু বকাবকি করেছিলেন। এরপরেই ঘরে ঢুকে দোরে খিল দিয়ে সিলিং থেকে ঝুলে পড়ে মাত্র বছর পনেরোর ওই কিশোর। ঘর থেকে অমিতকে তাড়াতাড়ি উদ্ধার করে ধূপগুড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলেও শেষ রক্ষা হয় নি। চিকিৎসকেরা ছেলেটিকে মৃত বলে ঘোষণা করলে দেহ ময়নাতদন্তের জন্য জলপাইগুড়িতে পাঠায় পুলিশ। নাথুয়া বানিয়াপাড়া চৌরাস্তা উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ত অমিত।

মোবাইল এখন আসক্তির আরেক নাম। সেলফি থেকে শর্ট ভিডিও, গেম থেকে সোস্যাল নেটওয়ার্কিং- নয় ইঞ্চি স্ক্রিন থেকে চোখ সরানোই মুশকিল। কোভিড পিরিয়ডে অনলাইন ক্লাসের দৌলতে বাচ্চাদের‌ও হাতে হাতে অ্যান্ড্রোয়েড সেট। পড়ালেখার থেকে পড়ুয়াদের মোবাইলে বেশি সময় কাটে গেমে। বাপ-মা শাসন করলেই হিতে বিপরীত। আত্মহত্যার মতো চরম সিদ্ধান্ত নিতে পর্যন্ত দ্বিধা করছে না বর্তমান প্রজন্মের কিশোর-কিশোরীরা।

ভিডিও-

Feature image is representational. Video- Reporter.


Leave a Reply

Your email address will not be published.