দল ছাড়ছি না কিন্তু দলছাড়া করলে গুপ্তকথা ফাঁস করে দেবো,হুঁশিয়ারি তথাগত রায়ের


রাজ্য বিজেপি যেন যাত্রাপালার মঞ্চ ! সেখানে বিবেকের পার্টে তথাগত রায় । বিবেকের হুলে জেরবার বিজেপি । বিবেকরূপী তথাগত দিলেন গুপ্তকথা ফাঁসের হুমকিও।

পলিটিক্যাল ডেস্ক : স্বেচ্ছায় দল ছাড়ছেন না । কিন্তু দল ছাড়তে পারলে সব গুপ্তকথাই ফাঁস করে দিতেন । রবিবার দুপুরে নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে তথাগত রায় এমন কথা পোস্ট করতেই রাজনৈতিক মহলে শোরগোল উঠল । মেঘালয় ও ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপালের এই হুমকির নিশানা দিলীপ ঘোষ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। বঙ্গ বিজেপির অন্দরে দিলীপ ঘোষ -তথাগত রায়ের ঠোকাঠুকি নতুন নয়। রাজ্য সভাপতির পদ গিয়ে দিলীপ এখন বিজেপির সর্বভারতীয় সহসভাপতদের একজন । কিন্তু তারপরেও দিলীপ-তথাগতে বাগযুদ্ধে ছেদ পড়া দূরে থাকুক সাম্প্রতিক সময়ে তা চরমে উঠেছে। দিলীপ ঘোষের শিক্ষাদীক্ষা , ভুল বাংলা বানান থেকে ভুল ইংরাজিতে ট্যুইট – কোনও কিছু নিয়েই ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করতে বাদ দেন না প্রাক্তন রাজ্যপাল । দু’দিন আগেই তথাগত রায়ের কটাক্ষের শিকার হয়ে রেগে গিয়ে তাঁকে দল থেকে বিদায় হতে বলেন দিলীপ ঘোষ । রাজ্য বিজেপিতে তথাগত রায়ের কোনও অবদান নেই। এই রকম লোক দল ছাড়লেই দলের মঙ্গল – এই ছিল দিলীপের বক্তব্যের নির্যাস ।

দিলীপ-তথাগত ঠোকাঠুকি সংবাদমাধ্যমের নিত্য খোরাক হয়ে দাঁড়িয়েছে।

দিলীপ ঘোষকে পাল্টা দিতে রবিবার ট্যুইট করেন তথাগত রায়। তথাগত লিখেছেন, ” গতকাল থেকে ফোনে ফোনে জর্জরিত হয়ে গেলাম। সকলকে আশ্বস্ত করছি এই বলে যে, আমি স্বেচ্ছায় দল ছাড়ছি না। আমি আপাতত একজন সাধারণ সদস্য। এই অবস্থাতেই যাত্রার বিবেকের ভূমিকা পালন করে যাব। দল ছাড়তে পারলে সব গুপ্তকথাই ফাঁস করতে পারতাম কিন্তু এখন‌ই তা হচ্ছে না। ” তিনি যে দিলীপ ঘোষ কিম্বা কৈলাস বিজয়বর্গীয় অথবা দল সংক্রান্ত অন্য যে কোন‌ও বিষয়ে মুখ চালিয়েই যাবেন, তথাগতের ট্যুইটের বক্তব্য থেকেই তা পরিস্কার । এখন বিবেকের ভূমিকায় প্রাক্তন রাজ্যপাল কতদূর যান , সেটাই দেখার । দিলীপ ঘোষ , কৈলাস বিজয়বর্গীয় , শিবপ্রকাশ এবং অরবিন্দ মেননকে লক্ষ্যবস্তু করে তথাগত রায়ের বেলাগাম মন্তব্যের ঠ্যালায় অনেক দিন ধরেই বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব অস্বস্তিতে । ইতিমধ্যেই বারকয়েক তথাগতবাবুকে সতর্ক করে দিয়েছেন শীর্ষ নেতৃত্ব । কিন্তু তাতে যে কাজ কিছুই হয় নি , তা তথাগত রায়ের ট্যুইটারে নিয়মিত নজর রাখলেই টের পাওয়া যায়।

তথাগত রায়ের ট্যুইট।

তথাগতের বিবেকের ভূমিকায় নাজেহাল হয়ে শীর্ষ নেতৃত্ব তাঁকে দলছাড়া করলে তিনি ভেতরের অনেক গোপনকথা বাইরে ফাঁস করে দেবেন – এই হুঁশিয়ারি দিয়ে রাখতেও ভুললেন না বর্ষীয়ান নেতা। বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্বের প্রতি‌ও খুব একটা সন্তুষ্ট নন তথাগত রায়। আসলে রাজ্যপাল পদ যাওয়ার পর কলকাতায় ফিরতেই দলে আবার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা দাবি করলেও কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব তথাগতবাবুর সেই দাবিতে বিশেষ কর্ণপাত করে নি। তখন থেকেই দলের অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন ইস্যুতে বেলাগাম মন্তব্য করতে শুরু করেন তথাগত রায়। বিধানসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবির পর আরও ধারালো হয়ে ওঠে তথাগতের আক্রমণের ভাষা। তথাগতের রবিবারের ট্যুইটের পর দিলীপ ঘোষ কী পাল্টা দেন , এখন এটাই দেখার । বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব তথাগত রায় সম্পর্কে কী মনোভাব নেন , সেই দিকেও তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল ।

Photo Credits- Official FB page of Tathagata Roy and Dilip Ghosh.


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *