পচাডোবার পাল্টা দিলেন অধীর , মমতাকে কুয়োর ব্যাঙ বলে কটাক্ষ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির


কংগ্রেস ও তৃণমূলের তরজায় রাজনীতির বাজার গরম ।‌ পিকের উস্কানিতেই কংগ্রেসকে অপমান করছেন মমতা – অভিযোগ অধীর চৌধুরীর ।

পলিটিক্যাল ডেস্ক : এবার তৃণমূলের ‘ পচাডোবার ‘ পাল্টা দিলেন অধীররঞ্জন চৌধুরী । রবিবার সাংবাদিক সম্মেলনে চাঁচাছোলা ভাষায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধুয়ে দিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি । মমতাকে কুয়োর ব্যাঙের সঙ্গে তুলনা করেন অধীর । মমতাকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ” আপনি কুয়োর ব্যাঙ একটা । কুয়োর ব্যাঙ এখন ভাবছে আমি তাড়াতাড়ি করে হাতি হয়ে যাবো । পিকে কুয়োর ব্যাঙের মুখে দিনরাত প্রধানমন্ত্রী হ‌ওয়ার  গ্যাস পুরে যাচ্ছে । গ্যাস খেতে খেতে দিদি ভাবছেন এই আমি হাতির কাছাকাছি পৌঁছে গেলাম । ” পিকের গ্যাস খেয়ে এক কুয়োর ব্যাঙ শতাব্দী প্রাচীন কংগ্রেসকে গিলে নেবার চেষ্টা করছেন বলে তৃণমূল সুপ্রিমোকে কটাক্ষ করেন অধীর চৌধুরী।

গত লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই তৃণমূল পিকের উপরে নির্ভরশীল বলে মনে করেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ‌। কটাক্ষ করে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বলেন, ” এখন পিকে মানেই তৃণমূল ।‌ তৃণমূল মানেই পিকে । পিকে যেই ভাবে বলেন দিদি সেইভাবে চলেন । ” পিকের পরামর্শেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেসকে লাগাতার আক্রমণ করে যাচ্ছেন  বলে মনে করেন অধীর চৌধুরী। অধীরবাবু বলেন, ” মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেসটাকে যেমন তুলে দিয়েছেন তেমনি ভারতবর্ষ থেকেও তুলে দেওয়ার প্রচেষ্টা করে যাচ্ছেন । ” মমতা পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতিতে বিশ্বাসঘাতকতার সংক্রমণ নিয়ে এসেছে বলে অভিযোগ করেন ‌অধীর চৌধুরী । তিনি বলেন, ” ২০১১ সালে কংগ্রেস যদি তৃণমূলকে সহযোগিতা না করত তৃণমূলের বাবার ক্ষমতা ছিল পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতায় আসার ? ”   অধীর বিস্ময় প্রকাশ করে আরও বলেন , ” সেদিন কংগ্রেসকে ভাল লেগেছিল । কংগ্রেসের সংগঠন ভাল লেগেছিল । কংগ্রেসের আর্থিক সহযোগিতা ভাল লেগেছিল ।  সব এখন খারাপ হয়ে গেল কংগ্রেসের! কংগ্রেস পচাডোবা হয়ে গেল ! “

পিকের প্ররোচনায় কংগ্রেসকে ক্ষ্যাপাচ্ছেন মমতা , অভিযোগ কংগ্রেসের।

প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি বলেন, ” কংগ্রেস মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সম্মান দিতে চায় কিন্তু মমতা সম্মান নিতে জানেন না । ” প্রধানমন্ত্রী হ‌ওয়া তো দূরের কথা অহঙ্কারে চব্বিশ থেকেই মমতার পতনের সূচনা হবে বলে  ভবিষ্যদ্বাণীও  করেন অধীর চৌধুরী। লোকসভা নির্বাচনের তিন বছর বাকি থাকতেই  কংগ্রেস ও তৃণমূলের তরজা যেভাবে বাজার গরম করে তুলেছে তাতে মোদী বিরোধী মহাজোটের ভবিষ্যৎ নিয়েই সংশয় উঠতে শুরু করেছে রাজনৈতিক মহলে । প্রথম প্রথম তৃণমূলের কটাক্ষকে তেমন সিরিয়াস ভাবে নেন নি কংগ্রেস নেতৃত্ব । কিন্তু  মমতা ও অভিষেকের  আক্রমণের ঝাঁঝ এখন এতটাই বেড়ে গিয়েছে যে আর উপেক্ষা করা  সম্ভব হচ্ছে না কংগ্রেসের পক্ষে । কংগ্রেস শিবির থেকে এমন‌ও অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে যে , বিজেপির ইন্ধনেই কংগ্রেসের বিরুদ্ধে লাগাতার আক্রমণ শানাচ্ছে তৃণমূল । বিরোধী জোট ভেস্তে দিতে বিজেপি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কাজে লাগাচ্ছে বলে সন্দেহ করছে কংগ্রেস শিবির।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *