আফগান রণাঙ্গনে নিহত পুলিৎজার জয়ী ভারতীয় চিত্রসাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকি


হাইলাইটস –
  • আমেরিকা পিঠটান দিতেই ফের আফগানিস্তানে তালিবানদের দাপট ।
  • ইতিমধ্যেই ২০০ জেলা তালিবানদের নিয়ন্ত্রণে । শেষ আমেরিকান সৈন্য আফগানিস্তান ত্যাগের আগেই তালিবানদের হাতে কাবুল পতনের আশঙ্কা।
  • কান্দাহারে সরকারি সেনা ও তালিবানদের সংঘর্ষের মাঝে পড়ে ভারতীয় চিত্রসাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকির মৃত্যু।
  • ২০১৮ সালে ফিচার ফটোগ্রাফিতে পুলিৎজার পুরস্কার পেয়ে ছিলেন রয়টার্সের চিত্রসাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকি ।
  • এমবেডেড জার্নালিস্ট হিসেবে আন্তর্জাতিক পরিসরে যথেষ্টই খ্যাতি কুড়িয়ে ছিলেন দানিশ।

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে একুশ বছর আগে আফগানিস্তানে সেনা পাঠিয়েছিল আজ তাদের হাতেই যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটাকে তুলে দিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে আমেরিকা । আমেরিকার নেতৃত্বাধীন ন্যাটো বাহিনী যত‌ই সরছে তত‌ই আফগানিস্তানের উপর নিজেদের নিয়ন্ত্রণ জোরালো করছে তালিবান । মে মাস থেকে ন্যাটোর সৈন্য প্রত্যাহার শুরু । ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রত্যাহার পর্ব সম্পূর্ণ হয়ে যাবে । তার আগেই রাজধানী কাবুল সহ আফগানিস্তানের বৃহদাংশ তালিবানদের দখলে চলে যাবে বলে আন্তর্জাতিক মহলের আশঙ্কা । আফগানিস্তান জুড়ে সরকারি সেনাবাহিনীর সঙ্গে তুমুল যুদ্ধ চলছে তালিবানদের । আর সেই যুদ্ধে প্রতিদিন জমি হারাচ্ছে সরকার । আফগানিস্তানের ৩৪টি প্রদেশের ৪৬০ টি জেলার মধ্যে ২০০টি জেলা ইতিমধ্যেই তালিবানদের কব্জায় চলে গেছে জানা যাচ্ছে । শুক্রবার কান্দাহারে দুই পক্ষের লড়াইয়ের মধ্যে পড়ে প্রাণ হারালেন পুলিৎজার পুরস্কার জয়ী ভারতীয় চিত্রসাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকি ।

কান্দাহারে নিহত ভারতীয় সাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকি ।

বছর চল্লিশের দানিশ রয়টার্সে চাকরি করতেন । এমবেডেড জার্নালিস্ট ( Embedded Journalist ) হিসেবে যুদ্ধক্ষেত্রের ছবি তুলতে মাত্র কয়েকদিন আগেই আফগানিস্তানে গিয়েছিলেন দানিশ সিদ্দিকি । আফগান সেনাবাহিনীর সঙ্গে থেকেই যুদ্ধক্ষেত্রে নিজের পেশাগত দায়িত্ব পালন করছিলেন এই এমবেডেড ফটো জার্নালিস্ট । কান্দাহারের স্পিন বোলডাক জেলায় তুমুল যুদ্ধ চলছে তালিবান ও আফগান সেনাবাহিনীর মধ্যে । কান্দাহার বরাবরই তালিবানদের শক্ত ঘাঁটি ।‌ তবে মার্কিন সেনার উপস্থিতির কারণে গত বেশ কয়েক বছর ধরে কান্দাহারে কোনঠাসা ছিল তালিবানরা । ন্যাটো বাহিনীর মদতে কান্দাহারের অধিকাংশ জায়গা নিজেদের দখলে আনতে পেরেছিল কাবুল সরকার । মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের পূর্ব ঘোষণা মতো ন্যাটো বাহিনীর প্রত্যাহার শুরু হ‌ওয়া মাত্র ফের  স্বমূর্তি ধারণ করে দুর্ধর্ষ তালিবান যোদ্ধারা । তাদের আক্রমণে পিছু হটা শুরু করে আফগানিস্তান সরকারের সৈন্যবাহিনী ।

স্পিন বোলডাকের রণাঙ্গনে দুই পক্ষের সংঘর্ষের মাঝে পড়ে  বৃহস্পতিবার রাতেই দানিশ সিদ্দিকি  জখম হয়েছিলেন বলে খবর পাওয়া গেছে । আফগান সেনা শিবিরে তাঁর শুশ্রুষা চলছিল । শুক্রবার সকালে তালিবানদের প্রবল হামলার সম্মুখীন হয় সরকারি সৈন্যবাহিনী । তাদের শিবির পর্যন্ত গুড়িয়ে যায় । রক্ষা পান নি পুলিৎজার জয়ী আহত ভারতীয় সাংবাদিক‌ও । গোলাগুলিতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় দানিশের ।

১৩ জুলাই কান্দাহারের যুদ্ধভূমি থেকে যা ট্যুইট করেছিলেন দানিশ ।

মুম্বাইয়ের বাসিন্দা দানিশ সিদ্দিকি পড়ালেখা করেছেন দিল্লির জামিয়া মিলিয়ায় । টেলিভিশন সাংবাদিক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করলেও তাঁর প্যাসান ছিল ফটো তোলা । ২০১০ সালে বিখ্যাত আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্সে চিত্রসাংবাদিক হিসেবে যোগ দেন দানিশ । প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে যুদ্ধক্ষেত্র – ঝুঁকি নিয়ে ছবি তুলতে ভালবাসতেন তিনি । এমবেডেড জার্নালিস্ট হিসেবে যুদ্ধের ছবি তুলতে ২০১৬ সালে ইরাকের মসুলেও গিয়েছিলেন দানিশ সিদ্দিকি । ২০১৮ সালে সহকর্মী আদনান আবিদির সঙ্গে ফিচার ফটোগ্রাফিতে পুলিৎজার পুরস্কার লাভ করেন দানিশ । দানিশ সিদ্দিকি‌ই পুলিৎজার ‌প্রাপ্ত প্রথম ভারতীয় চিত্রসাংবাদিক । এমবেডেড জার্নালিজম সাংবাদিকদের জন্য সর্বাধিক ঝুঁকির কাজ । শুধু ইরাকের যুদ্ধক্ষেত্রেই এই পর্যন্ত ১৩৭ জন‌ সাংবাদিক-চিত্রসাংবাদিক নিহত হয়েছেন ।

Photo Credits – Twitter.


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *