‘ উড়ন্ত চাকি ‘ র রহস্যভেদে বৈজ্ঞানিক অনুসন্ধানে নামতে চলেছে নাসা !


  • নাসার নতুন প্রধান বিল নেলসন চান, ইউএফও নিয়ে ধোঁয়াশা কাটাতে অনুসন্ধানে নামুক বিজ্ঞানীরা ।
  • দায়িত্বভার নেওয়ার পরেই নাসার বিজ্ঞানীদের অনুসন্ধানে নামার নির্দেশ দিয়েছেন নেলসন।
  • গত দুই দশকে মার্কিন নৌ ও বিমান বাহিনীর পাইলটদের চোখে ইউএফও সংক্রান্ত যা যা ধরা পড়েছে তার ভিত্তিতেই অনুসন্ধান করবে নাসা ।
  • জুনের শেষে আমেরিকান কংগ্রেসের সামনেও ইউএফও সংক্রান্ত নথি পেশ করার কথা পেন্টাগন ও গোয়েন্দা বিভাগের

সায়েন্স ডেস্ক : গ্রহান্তরের বুদ্ধিমান প্রাণীরা পৃথিবীতে উঁকিঝুঁকি মারছে কিনা , এই নিয়ে মানুষের কৌতুহলের শেষ নেই । কল্পবিজ্ঞানের পাতাতে উড়ন্ত চাকির গল্পের ছড়াছড়ি । গত ৭৫ বছরে পৃথিবীতে বহুবার সাধারণ মানুষের চোখে আকাশে রহস্যময় বস্তুর চকিতে উড়ে যাওয়া ধরা পড়েছে । এমনকি আমেরিকান নৌ ও বিমান বাহিনীর পাইলটেদের‌ও একাধিকবার এমন অভিজ্ঞতা হয়েছে বলে তারা ‌উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে রিপোর্ট করেছেন ।‌ গত দুই দশকে ইউএফ‌ও বা আন‌আইডেন্টিফায়েড ফ্লাইং অবজেক্টস নিয়ে চর্চা অনেক বেড়ে গেছে । অনেকের কাছেই ঘটনা গুলো যথেষ্টই রহস্যময় ঠেকলেও বৈজ্ঞানিক মহলের একাংশ ইউ‌এফ‌ও দর্শনকে গুজব বা চোখের ভুল‌ বলে উড়িয়ে দিয়েছে । তবে এবার উড়ন্ত চাকি সংক্রান্ত যাবতীয় ঘটনার সত্যাসত্য যাচাইয়ে অনুসন্ধানে নামল আমেরিকার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা ।

ইউ নেভির জেট থেকে তোলা ইউএফও ভিডিওর স্থিরচিত্র ।

নাসার নতুন প্রধান হিসেবে গত মাসে দায়িত্ব নিয়েছেন বিল নেলসন । সম্প্রতি ইউএফ‌ও সংক্রান্ত বিষয়ে অনুসন্ধানে নামতে সংস্থার বিজ্ঞানীদের নির্দেশ দিয়েছেন নেলসন । এই প্রথমবারের মতো নাসা ইউএফ‌ও বা আকাশে অজানা উড়ন্ত বস্তুর ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে গবেষণায় নামল বলে জানা গেছে । বিশেষ করে গত দুই দশকে আমেরিকার নেভি ও বিমান বাহিনীর পাইলটদের চোখে আকাশে যেসব রহস্যময় বস্তুর উড়ে যাওয়ার ঘটনা ধরা পড়েছে , সে সব নিয়ে বৈজ্ঞানিক অনুসন্ধানে নামার নির্দেশ দিয়েছেন নাসা প্রধান । দিন কয়েক আগে সিএন‌এনকে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় তাঁর এই নির্দেশ নিয়ে মুখ খোলেন নাসা প্রধান । তিনি বলেন , ‘ ই‌উ‌এফ‌ও সংক্রান্ত ঘটনা গুলো আদতে কী তা খুঁজে দেখতে বিজ্ঞানীদের নির্দেশ দিয়েছি আমি । এই জিনিসটা নিয়ে মানুষের মনে যাতে আর কোনও ধোঁয়াশা না থাকে সেই লক্ষ্যে‌ই নাসাকে বিজ্ঞানভিত্তিক অনুসন্ধানে নামানো হচ্ছে । ‘ বিল নেলসনের ভাষায় – ‘ মূল কথাটি হল সত্যটা কী আমরা জানতে চাই । এবং আমরা তা জানার চেষ্টা করব ।’

আকাশে অজানা বস্তুর উড়ে যাওয়া সম্পর্কিত অনেক নথিপত্র আমেরিকার প্রতিরক্ষা দফতর‌ ও গোয়েন্দা বিভাগের হাতে আছে বলে ধারণা । আনক্লাসিফায়েড সেই সব ফাইল নিয়ে দুই হাজার বিশের ডিসেম্বরেই নড়চড়ে বসে আমেরিকান কংগ্রেস‌ও । সেই সময় সেনেটের ইন্টেলিজেন্স কমিটির চেয়ারপার্সন মার্কো রুবিও পেন্টাগন ও আমেরিকার ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্সের ডিরেক্টরকে নির্দেশ দিয়েছিলেন ছয় মাসের মধ্যে তাদের হাতে থাকা ইউএফ‌ও সংক্রান্ত যাবতীয় আনক্লাসিফায়েড ফাইল হাউসের সামনে দাখিল করতে হবে । চলতি মাসেই সেই সময়সীমা শেষ হয়ে যাচ্ছে । তাই জুলাই আসার আগেই পেন্টাগন ও মার্কিন গোয়েন্দা দফতরের হাতে থাকা ইউএফ‌ও সংক্রান্ত আনক্লাসিফায়েড ফাইল কংগ্রেসে জমা পড়ার কথা । নাসার অনুসন্ধান কিম্বা পেন্টাগনের গোপন নথি থেকে উড়ন্ত চাকি নিয়ে রহস্যের জট‌ শেষ পর্যন্ত কাটে কিনা এখন সেই দিকেই মুখিয়ে আছেন সবাই।

নাসার তদন্ত নিয়ে FOX 13 TAMPA BAY চ্যানেলের প্রতিবেদন ।

প্রচ্ছদের ছবি কাল্পনিক ও সংগৃহীত । Photo Credit- space.com/ US Navy


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *