শীতলকুচি কান্ডে বিস্ফোরক অভিযোগ মমতার : ‘এসপি ‘ র সঙ্গে বসে প্ল্যান করে মেরেছে বিজেপি !


রানাঘাট, ২ এপ্রিল,২০২ : আনন্দ বর্মণকে বিজেপিই খুন করেছে বলে অভিযোগ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । সোমবার নদীয়ার রানাঘাটে নির্বাচনী সভায় বক্তৃতা দেওয়ার সময় আনন্দ বর্মণের মৃত্যুর দায় বিজেপির ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়ে মমতা আরও ‌বলেন , ‘ বিজেপি তুমি তোমার নিজের কর্মীকে নিজে খুন করেছো । তোমার লজ্জা করে না । ‘ শীতলকুচির দুই বুথে পাঁচজনের মৃত্যুর ঘটনায় মমতার অভিযোগ, ‘ প্রথমে নিজেদের একটা লোককে খুন করেছে বিজেপি। এরা পারে না এমন কোনও কাজ নাই । ‘ 

উল্লেখ্য , শনিবারবার চতুর্থ দফা ভোটের দিন সকালে কোচবিহারের শীতলকুচি বিধানসভার পাঠানটুলি গ্রামের শালবাড়ি এলাকার ২৮৫ নম্বর বুথে জীবনে প্রথমবারের মতো ভোট দিতে লাইনে দাঁড়িয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায় বছর আঠারোর যুবক আনন্দ বর্মণ । আনন্দ বিজেপির কর্মী ছিলেন বলে জানা গেছে । তৃণমূলের লোকেরাই আনন্দকে বুথের মধ্যে খুন করে বলে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ । এর কিছুক্ষণের মধ্যেই এক‌ই বিধানসভা কেন্দ্রের জোড়াপাটকি গ্রামের ১২৬ নম্বর বুথে সি‌আইএস‌এফ জ‌ওয়ানদের গুলিতে মারা যায় হামিদুল হক, মনিরুল হক , সামিরুল মিঞা ও আমজাদ হোসেন নামে চার যুবক । কয়েকশো গ্রামবাসী সিআইএস‌এফের ওপর চড়াও হয়ে অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে জ‌ওয়ানরা আত্মরক্ষার্থে গুলি চালিয়েছে বলে নির্বাচন কমিশনকে রিপোর্টে জানিয়েছে কোচবিহার জেলা প্রশাসন । যদিও প্রশাসনের রিপোর্ট মানতে নারাজ তৃণমূল সুপ্রিমো । ‌ওই চারজনকে সিআইএসএফ ‘এর  জ‌ওয়ানদের দিয়ে গুলি চালিয়ে বিজেপি প্ল্যান করে খুন করেছে বলে অভিযোগ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । 

এদিকে এক‌ই বিধানসভা কেন্দ্রের ভেতর ভোটের লাইনে আনন্দ বর্মণের গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যুর ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোনও উচ্চবাচ্চ করছেন না বলে অভিযোগ তোলে বিজেপি । এই ঘটনায় আঘাত লাগে রাজবংশী ভাবাবেগেও । যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব । ড্যামেজ কন্ট্রোলের চেষ্টায় আনন্দ বর্মণের মৃত্যু নিয়ে ঘটনার ৪৮ ঘন্টা পরে রানাঘাটের নির্বাচনী সভায় মুখ খুললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়‌ও । রাজবংশী যুবক আনন্দের মৃত্যুর দায় বিজেপির ওপর চাপিয়ে দিয়ে মমতা বলেন , ‘ আমি এই ঘটনার‌ও নিন্দা করছি । আমি তার পরিবারকেও সাহায্য করব । ‘ 

আনন্দ বর্মণের গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যুর ঘটনায়  রাজবংশী ভাবাবেগে আঘাত লেগেছে । 
 
এদিকে শীতলকুচির জোড়াপাটকি গ্রামে সিআইএসএফ ‘ এর গুলি চালানোর ঘটনায় সোমবার কোচবিহারের এসপির বিরুদ্ধে রীতিমতো বিস্ফোরক অভিযোগ ‌আনলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রানাঘাটের নির্বাচনী সভায় মমতার অভিযোগ , ‘ চারজনকে প্ল্যান করে মেরেছে ।পুরো প্ল্যানটাই বিজেপি করেছে এসপির সঙ্গে বসে । ‘ ঘটনার নেপথ্যে কারা কারা আছে খুঁজে বের করতে তিনি তদন্ত করবেন বলে দাবি করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান , ‘ এটার তদন্ত তো আমি করবোই । আসল ঘটনা বের করবোই । কারা কারা গুলি চালিয়েছে । কারা কারা বসে প্ল্যান করেছে । কীভাবে আগে একটি মেয়েকে পাঠিয়েছে যে বলো আমার বাচ্চাটাকে লুঠে নিয়ে গেছে । সব বের করব । ‘ মমতা আরও ‌বলেন, ‘ প্ল্যান করে গুলি চালিয়েছে । গুলি চালিয়ে বুক ঝাঁঝরা করেছে । তারপর ক্লিন চিট দিচ্ছে । ‘ 
নিজের গাড়ি নিজেই ভেঙেছেন লকেট – নাম না করে অভিযোগ মমতার ।

চতুর্থ দফার ভোটে চুঁচুড়া বিধানসভা কেন্দ্রের ৬৬ নম্বর বুথে আক্রান্ত হয়েছিলেন বিজেপি প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায় ।‌ তৃণমূলের দুষ্কৃতকারীরা তাঁর গাড়ি ভাঙচুর চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেন বিজেপি প্রার্থী । সোমবার রানাঘাটের সভা থেকে নাম না করে লকেটকেও বিদ্রুপ করতে ছাড়েন নি মমতা । তৃণমূল সুপ্রিমো কটাক্ষ ছুঁড়ে বলেন,’ এরা পারে না এমন কোনও কাজ নেই । দেখলেন না । ওদের এমপি একজন । মহিলা । নিজের গাড়ি নিজেই ভাঙছিলেন । দেখেছেন ? নিজের গাড়ি নিজেই ভাঙছিলেন । এরা নিজের লোককে নিজেরাই মেরে ফেলতে পারে । ‘


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *