শুভেন্দু অনুগামী বুবাই করের তৃণমূল ত্যাগ || তৃণমূল করতাম তোলামূল নয় , দল ছেড়েই তোপ বুবাই করের || জলপাইগুড়ি জেলায় তৃণমূল ছাড়ার লম্বা লাইন , ইঙ্গিত শুভেন্দু অনুগামীর - nagariknewz.com

শুভেন্দু অনুগামী বুবাই করের তৃণমূল ত্যাগ || তৃণমূল করতাম তোলামূল নয় , দল ছেড়েই তোপ বুবাই করের || জলপাইগুড়ি জেলায় তৃণমূল ছাড়ার লম্বা লাইন , ইঙ্গিত শুভেন্দু অনুগামীর


প্রদ্যুৎ দাস , জলপাইগুড়ি, ২০ ডিসেম্বর : তৃণমূল কংগ্রেস করেছি । কিন্তু তোলামূল কংগ্রেস কোন‌ও দিন করি নি । রবিবার ঠিক এই ভাষাতেই সদ্য ত্যাগ করা দলের জেলা সভাপতির কটাক্ষের জবাব দিলেন বুবাই কর ।‌ শনিবার দুপুরে অমিত শাহের সভামঞ্চে শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেস ত্যাগ করেন বুবাই কর । জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূল কংগ্রেস কমিটির যুগ্মসম্পাদক ছিলেন তিনি । জেলায় বরাবরই শুভেন্দু অনুগামী হিসেবে পরিচিত বুবাই কর পদ ছাড়ার‌ পাশাপাশি দলের প্রাথমিক সদস্যতাও ছেড়ে দিয়েছেন । 

অমিত শাহর হাত থেকে বিজেপির পতাকা নিচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী

বুবাই কর কোনও দিন তৃণমূল পার্টিটাই ঠিকমতো করেন নি – তাঁর পদত্যাগের  পর জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূলের সভাপতি কৃষ্ণকুমার কল্যাণী এমন মন্তব্য করেন বলে খবর  । রবিবার সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে কৃষ্ণবাবুর মন্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া দিতে দেরি করেন নি সদ্য তৃণমূলত্যাগী এই নেতা । তৃণমূল ছাত্র পরিষদ দিয়ে বুবাই করের রাজনৈতিক জীবন শুরু । জেলা টিএমসিপির কার্যকরী সভাপতি ছিলেন।  একসময় জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি ছিলেন বুবাই কর । রাজ্য যুব তৃণমূলের সম্পাদক‌ পদেও কাটিয়েছেন কিছুদিন ।  জলপাইগুড়ি টাউন ব্লক তৃণমূলের যুব কংগ্রেসের সভাপতির দায়িত্ব‌ও সামলেছেন তিনি । 

শুভেন্দু অধিকারী যখন যুব তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি ছিলেন , তখন থেকেই শুভেন্দুকে রাজনৈতিক গুরু মানেন বুবাই কর । নিজেকে দাদার অনুগামী বলতে তাঁর কোন‌ও দ্বিধা নেই ।  রবিবার স্পষ্ট‌ই জানালেন – ‘ দাদার মতপথ‌ই আমার  ‌মতপথযে দলে শুভেন্দু অধিকারীর মাপের জননেতা সম্মান পান না সে দলে আমাদের প্রয়োজন ফুরিয়ে এসেছে  । ‘ সদ্য প্রাক্তন রাজনৈতিক সতীর্থরা কুকথায় তাঁকে বিদ্ধ করতে চাইবে জেনেও দমবার পাতার নন শুভেন্দু অনুগামী বুবাই কর । বুবাইবাবুর দাবি, ‘ কোনও দুর্নীতির অভিযোগ আজ পর্যন্ত আমার বিরুদ্ধে আসে নি । দল আমাকে তাড়িয়ে দেয় নি । আমি দল থেকে পদত্যাগ করেছি । ‘ সদ্য ছেড়ে আসা দলের প্রাক্তন সতীর্থদের কাছে বুবাই করের আবেদন, ‘ রাজনৈতিক মাঠে রাজনৈতিক কথাই হোক । ব্যক্তিগত আক্রমণ , ব্যক্তিগত  কুৎসা  যেভাবে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব শুরু ‌করেছে ,  সেটা বন্ধ হোক । ‘ বুবাই কর আর‌ও বলেন,’ বাংলার মানুষ বুদ্ধবাবুর ২৩৫ এর দম্ভকেও  এগারোতে উড়িয়ে দিয়েছে । এটা মনে রাখতে হবে গণতন্ত্রে মানুষ‌ই শেষ কথা বলে । ‘ পুরোনো দলের  সহকর্মীদের মানুষের রায় গ্রহণ করার জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকার আবেদন জানিয়ে বুবাইবাবু বলেন,’ লড়াইয়ের ময়দানে রাজনৈতিক ভাবেই দেখা হবে ।’

জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূলের আরও অনেক পদাধিকারী এবং জনপ্রতিনিধি দল ছাড়ার জন্য প্রস্তুত  বলে এদিন দাবি করেন বুবাই কর । অনেকেই তাঁর সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ রাখছেন বলে জানান তিনি । যেভাবে তৃণমূলের ক্ষয় শুরু হয়েছে তাতে এই দলের আর কোনও ‌ভবিষ্যৎ দেখতে পাচ্ছেন না বুবাইবাবু। সদ্য তৃণমূলত্যাগী এই নেতার কথায় ‘ কোনও প্রাইভেট এজেন্সিকে দিয়ে দল পরিচালনা করলে সেই দলের আয়ু বেশিদিন থাকে না ।’  আইপ্যাকের লোকেরা তাঁর বাড়িতে এলেও পাত্তা দেন নি শুভেন্দু অনুগামী বুবাই কর । বুবাই করের সাফ কথা, ‘ কোনও প্রাইভেট এজেন্সির কথা শুনে দল পরিচালনা করতে প্রস্তুত ন‌ই আমরা ।’ 

তৃণমূল ত্যাগ করলেও এখনও বিজেপিতে যোগ দেননি বুবাই কর । শুভেন্দু অধিকারী শীঘ্রই জেলায় আসবেন বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন তিনি । হয়তো তখনই শুভেন্দুবাবুর হাত থেকে পদ্ম পতাকা গ্রহণ করে বিজেপির খাতায় নাম তুলতে চান বুবাই কর ।

ভিডিও দেখুন –

ছবি- নিজস্ব/ সংগৃহীত 

ভিডিও – নিজস্ব


Leave a Reply

Your email address will not be published.